• রবে শুধু রব-amadersujanagar.com
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    রবে শুধু রব

    রবে শুধু রব পথিক জামান   একদিন এ পথে আর কেউ হাঁটবে না কোনোদিন চিরতরে বন্ধ হবে আনাগোনা – তারকা খচিত রাত জোছনার শুভ্র আলো ভোরের পাখির সুরেলা গান বসন্তের রঙিন আভা এবং ভোমরের মধু গুঞ্জন সব নীরব হয়ে যাবে – ফুলের রঙিন হাসি শিশুদের তালহীন নাচ সাগরের তরঙ্গমালা মাছখেকো শিয়ালের হুক্কা হুয়া, হিমালয়ের শীতল হাওয়া শিল্পীর গজল গাওয়া গবাদি পশুর অবাধ বিচরণ কৃষকের ভাটিয়ালি গান চির অম্লান রবে না কিছু- মেয়েদের খোঁপায় পরা রজনী গন্ধা ফুল লাল আলতা পরা চরণ যুগল দৃশ্যমান হবে না ধরায় সব অন্ধকারে বিলীন হবে গাঢ় অন্ধকারে, রবে শুধু রব,পবিত্র মহান। আরও পড়ুন ✪ মা…

  • টুনটুনি
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    টুনটুনি

    টুনটুনি পথিক জামান   টুনটুনি তোমার টুনটুন শব্দ আমার ঘুমঘুম ভাবকে দূর করে দেয় ধীরে ধীরে – তোমার অদ্ভুত চঞ্চলতা আমাকে মুগ্ধ করে সারাক্ষণ, সবুজ পাতার আড়ালে তোমার বাসার সন্ধান আমি জানি, চিকচিক যুগল ছানার ক্ষুধার্ত চিৎকারে তুমি পাগল প্রায়, তাই দূরন্ত ছুটাছুটি ডাল হতে ডালে, সবুজ পাতায় নরম তুলার শৈল্পিক বুননি পরম আরাম দেয় চরম শীতেও নিশ্চয়। অবুঝ শিশুটি বারবার হাত বাড়ায় তোমার স্পর্শ পাবার তীব্র আকাঙ্ক্ষায়- কাঁদে,আবার মাকে ডাকে ইশারায় ধরে দিতে তোমাকে, সন্তানের অপূর্ণ সাধ মেটাতে শিশু মাতা তোমাকে মুষ্ঠিবদ্ধ করতে চায়, নিজের শিশুর মুখে হাসি দেখার জন্যে, কখনো ভাব না তুমিও মা, বাসায় যুগল ছানা তখনো…

  • কেশবতী-প্রিয়ংগনা
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    কেশবতী প্রিয়ংগনা

    কেশবতী প্রিয়ংগনা পথিক জামান   কেশবতী প্রিয়ংগনা, তুমিতো সন্ধ্যাকাশের শুকতারার চেয়েও সুন্দর। তুমি অসীম আকাশে একাকী জেগে থাকা পূর্ণিমার চাঁদের মতোই উজ্জ্বল, কিন্তু আমার আকাশতো এখনো ঘোর অন্ধকার। এখানে আর চাঁদ ওঠেনা, তারাও ফোটেনা বহেনা মৃদুমন্দ বাতাস, ডাকেনা বসন্তের কোকিল ফোটেনা লাল কৃষ্ণচূড়ার ফুল ভরা বসন্তেও। বারান্দায় দাঁড়িয়ে এদিক সেদিক চাই, কত লোক আসে কত লোক যায়, শুধু তুমি নাই তাদের ভিড়ে। প্রতীক্ষার প্রহরগুলো হতাশায় শুধু দীর্ঘতরই হয়, আশার আলো ফোটেনা আর এ প্রতীক্ষিত জীবনে আমার!   আরও পড়ুন কবিতা- জগা ও পিসি বারো মাসের পদাবলী   আমাদের ফেসবুক পেইজ

  • সেদিন-কি-আর-আসবে-কভু-ফিরে
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    সেদিন কি আর আসবে কভু ফিরে

    সেদিন কি আর আসবে কভু ফিরে পথিক জামান   ধানসিঁড়ি আর পদ্মা নদীর তীরে আসবে কি আর মধুর অতীত ফিরে, কাটবে কি আর রাখাল দিনের বেলা, হায়রে জীবন হায়রে মধুর স্মৃতি হায়রে আমার মধুর পল্লিগীতি হায়রে আমার পুতুল পুতুল খেলা। স্মৃতিকাতর মানুষগুলো ভাই বাল্যকালের জন্য কাদেঁ তাই মনটা আমার কেঁদে ওঠে ছোট্ট শিশুর মতো, মনটা বলে এমন হয়না কেনো জন্মে মানুষ বুড়ো হয়না যেন তাহলে কি দুঃখ অত হতো? ছবির মতো দিনগুলো যায় চলে কেউ ডাকে না মানুষ বৃদ্ধ হলে সেই তো সবার বৃদ্ধকালের জ্বালা, তারুণ্য যার ছিলো সারা অঙ্গে বেড়াতো সে কত রঙে ঢঙে নাতিরা কয় আসছে বুড়ো পালা…

  • দোয়েল পাখি
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    দোয়েল পাখি

    দোয়েল পাখি পথিক জামান   দোয়েল পাখি, ভোরের আলো ফুটতে না ফুটতেই তোমার উপস্থিতি অনুভব করি ভোরের অন্ধকারে, তুমি অদ্ভত চঞ্চলা পলে পলে এ গাছে ও গাছে- আমার বাড়ির আঙিনায় তোমার ফুরুত ফুরুত পাখনার শব্দ প্রতিদিন কানে বাজে – আমি অপলক চেয়ে থাকি তোমার ধূসর কালো চঞ্চল দুটি ডানার দিকে। প্রকৃতির কোলে তুমি অনিন্দ্য সুন্দর এক তিলক রেখা- আলকুশি গাছটায় প্রতিদিন তোমায় দেখি সকাল সন্ধ্যায়। তোমাকে ভূষিত করেছি জাতীয় পাখির বিশাল উচ্চ মর্যাদায় জাতীয় জীবনে তুমি এক নতুন অধ্যায়- তোমাকে প্রতিদিন দেখি আলকুশি গাছটায়। ভোরের আলো ফোটার আগে তোমাকে চিরদিন দেখতে চাই – আমার বাড়ির আঙিনায় চিরচেনা আলকুশি গাছটায়। আরও…

  • আমার-জন্মভূমি
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    আমার জন্মভূমি

    আমার জন্মভূমি পথিক জামান   এই যে মধুর স্নিগ্ধ কোমল মুগ্ধ স্নেহের পরশ, সে যে আমার জন্মভূমি চিত্তে জাগায় হরষ।   আমার প্রাণে পুলক জাগায় আমার মায়ের ছোঁয়া, লাবণ্যময় মুখখানি তার শরৎ শিশির ধোয়া।   ভোরের বেলা হাজার পাখির হরেক রকম গান, খুশিতে তাই দুলে ওঠে পথিক জনের প্রাণ।   কি যে মধুর ডাকাডাকি বসে গাছের ডালে, এমন মধুর মাতৃমূর্তি দেখেছে কোন কালে।   কৃষক ছোটে মাঠের পানে শিশুর কোলাহল, সবুজ ঘাসে শিশির কণা রোদ্রে ঝলমল।   নদীর বুকে পাল তোলা নাও চলছে অবিরত, নদীর চরে অচীন পাখি জুটছে শত শত।   প্রেম পিয়াসী পথিক জনে হাঁটে নদীর পাড়ে, বিকাল…

  • শুধু-দীর্ঘ-শ্বাস-ফেলি
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    শুধু দীর্ঘ শ্বাস ফেলি

    শুধু দীর্ঘ শ্বাস ফেলি পথিক জামান   ঘৃণার আগুন দাউদাউ করে জ্বলে – এখনো তা জ্বলছে আমার সমস্ত অঙ্গ জুড়ে। কি ভয়ংকর বৈষম্যের বেড়াজালে আটকা পড়ে আছে জাতি, আর এ জাতির মেধাবী সন্তান। প্রতি পদে পদে মানুষ অবহেলিত, নির্যাতিত বঞ্চিত শোষিত অহরহ, রাজদণ্ডের প্রবল দৌরাত্ম্যে, শঙ্কিত খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ, সত্য ভয়ে থরথর কাঁপে- মাদকের উলঙ্গ থাবা সমাজের প্রতিটি রন্ধ্রে, ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে দাঁড়িয়ে একটি গর্বিত জাতি ধুঁকে ধুঁকে মরছে তোমার আমার চোখের সম্মুখে উদাস দাঁড়িয়ে দেখি গর্বিত জাতির উত্থান পতনের বিচিত্র ইতিহাস – শুধু দীর্ঘ শ্বাস ফেলি নীরবে নিঃশব্দে। আরও পড়ুন কবিতা- প্রার্থনা নিঃসঙ্গতা প্রতিবেশী সমাচার ঘুরে আসুন আমাদের…

  • রহস্যের-সন্ধান
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    রহস্যের সন্ধান

    রহস্যের সন্ধান পথিক জামান   তুমি অসীম শূন্যতায় মিশে আছো, সকল দৃষ্টির আড়ালে অনাদি অনন্তকাল ধরে। কি অসম্ভব ক্ষমতা তোমার! তোমার বিশাল আকাশে উজ্জ্বল নক্ষত্র আর তারার মিছিল, চরম গরমে শীতল বাতাসের নরম ছোঁয়া, কি অদ্ভুত মুগ্ধতা আনে এ অস্থির প্রাণে। স্তম্ভবিহীন বিশাল আকাশ চাঁদ সূর্যের শৃঙ্খলিত অস্ত উদয় বিশাল বিস্ময় জাগায় এ অন্তরে, কোন ইন্দ্রজাল কাজ করে অলক্ষ্যে অগোচরে, কবে খুঁজে পাবো তোমার রহস্যের সন্ধান? তুমি প্রকাশিত, তুমি বিকশিত শতরূপে স্রষ্টার মহান মহিমায়। আরও পড়ুন কবিতা- প্রার্থনা নিঃসঙ্গতা প্রতিবেশী সমাচার ঘুরে আসুন আমাদের ফেসবুক পেইজে

  • বিবর্ণ-স্বাধীনতা
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    বিবর্ণ স্বাধীনতা

    বিবর্ণ স্বাধীনতা পথিক জামান (ছদ্মনাম)   আজ নিজের ঘরটিকেও নিরাপদ ভাবতে পারছিনা আগের মতো, বর্গীরাতো চলে গেছে কবে কোনকালে – তবুও কেনো আতঙ্ক জনমনে? কেনো অন্ধকার রাতগুলোকে যমের মতে ভয় পায় সাধারণ মানুষ? বর্গীদের তাড়ালাম আমাদের শান্তি, স্বাধীনতা আর স্বপ্ন কেড়ে নিয়েছিলো বলে। ওরা চলে গেলো ঠিকই, কিন্তু রঙিন স্বপ্ন আর স্বাধীনতা বিবর্ণ হয়ে ধরা দিলো বাংলায়। এমন স্বাধীনতার জন্যে তো রণাঙ্গনে যুদ্ধ করিনি সেদিন, কিন্তু কেনো এ বেহাল দশা? উত্তর তোমাকে দিতেই হবে লীলাবতী। দিন দিন এ স্বাধীন দেশটা কি খুনী সন্ত্রাসী আর চাঁদাবাজদের স্বর্গ রাজ্য হবে? না, না এমনটা হতে দিতে পারি না। ওরাতো সংখ্যায় কম, তবু কেনো…

  • আমার-দুটি-হৃৎপিণ্ড
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    আমার দুটি হৃৎপিণ্ড, সুখের সন্ধান, একদিন অবশেষে

    আমার দুটি হৃৎপিণ্ড পথিক জামান   জীবন সায়াহ্নে এসে কতকিছু ভাবি প্রগাঢ় অন্ধকারে একাকী বসে বসে। কী পেলাম কী পেলাম না সে হিসেব মিলাতে পারিনি আজও। ঘুম আসে না আগের মতো, রাত যত গভীর হয় আমার ভাবনাগুলো আরো গভীরে বিচরণ করে অলক্ষ্যে অগোচরে নিশাচর পাখির মতো, তারপর আবার ভোর হয় সূর্য ওঠে, আবার নতুন স্বপ্নবুনি।   আমার যে দুটি হৃৎপিণ্ড দুপাশে নড়াচড়া করে একসাথে, মায়া লাগায়,আরো মায়া, ভাবি ওদের অনাগত ভবিষ্যৎ নিয়ে, কী হবে কী হবে না ইত্যাদি ইত্যাদি। ওদের চির মঙ্গল কামনায় শুধু আমার প্রার্থনা যেন দেখে যেতে পারি দুটি উজ্জ্বল মুখের জ্বলজ্বলে হাসি।     সুখের সন্ধান সত্যিকারের…

  • চাওয়ার-কিছু-নাই
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    চাওয়ার কিছু নাই

    চাওয়ার কিছু নাই পথিক জামান (ছদ্মনাম)    নেংটি পরে ঘুরে বড়ায় মুখেতে নাই দাড়ি, বিয়ের সময় পাত্রী খোঁজে পর্দানশীল নারী।   মা হেসে কয় আমার ছেলে মাটির মতো শান্ত, আনবো ঘরে ফর্সা মেয়ে জেনে আদ্যোপান্ত।   যে জন দেবে মোটা গয়না অনেক টাকা পণ, অনেক ভালোবাসবে তারে আমার আপনজন।   মেয়ের বাবা হেসে বলেন নামাজ পড়ে ছেলে? মাঝে মধ্যে পড় নামাজ যদি সময় মেলে।   তবে ভাইজান একটা কথা আমার ছেলে ভালো, যদি একটু বাড়িয়ে দেন, হোকনা মেয়ে কালো।   ছেলে নেশা করে না- কি?. জান্তেতো নাই মানা, আর কী করে ছেলের বাবা? পারিস যদি জানা।   ছেলের মায়ে বললো…

  • কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    ভালোবাসা রঙ পাল্টায়

    ভালোবাসা রঙ পাল্টায় পথিক জামান (ছদ্মনাম)   এখন কী দেখছি বর্তমান হালটায়, ভালোবাসাও রঙ পাল্টায়। প্রেম -পিরীতি ভালোবাসা রবে চিরকাল, ডিজিটাল ভালোবাসা করে নাজেহাল।   বেশি রঙে রঞ্জিত হলে ভালোবাসা, ফিকে হয়ে যাবে সব কাঙ্ক্ষিত আশা। পথে ঘাটে দেখি শুধু প্রেম প্রেম খেলা, প্রেম প্রেম খেলে খেলে কেটে যায় বেলা।   বহুরূপী প্রেম তুমি বহুরূপ ধরে, প্রেমিককে ধোঁকা দাও সবশেষ করে। প্রেম তুমি অপরূপ রূপের ডালা, ডিজিটাল প্রেমে ভাই অত নাই জ্বালা।   ডিজিটাল ছেলেমেয়ে, ডিজিটাল প্রেম, প্রেম নিয়ে খেলে তাই অদ্ভুত গেম। প্রেম তুমি বেঁচে থাকো স্বকীয়তা নিয়ে, ওরা প্রেম করে নাকো, করে শুধু ইয়ে।   শুনে রাখো উত্তম…

  • স্বপ্ন-দিয়ে-ছাওয়া
    কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    স্বপ্ন দিয়ে ছাওয়া

    স্বপ্ন দিয়ে ছাওয়া পথিক জামান (ছদ্মনাম)    বাংলা আমার পাখিমুখরিত ভোর হতে কালো সন্ধ্যা, রাত হলে ফোটে শিউলি বকুল শাপলা রজনী গন্ধা।   ফুলে আর ফলে ভরে থাকে মাঠ ডালে ডালে নানা পাখি, এত শোভা দেখে ভরে ওঠে মন জলে ভরে দুটি আঁখি।   আহা এত রূপ এত যে শোভা আর কি কোথাও আছে? লাল লাল সাজ বাসন্তী রঙ শোভা পায় গাছে গাছে।   তুল তুলে ফুল আমের মুকুল মৌমাছি গায় বাগে, রাতে হাসে চাঁদ সুনীল আকাশে প্রেম প্রেম ভাব জাগে।   বসন্তকালে বসন্ত দূত শিমুলের রাঙা ডালে, কুহু কুহু গেয়ে বেঁধেছে আমায় অদ্ভুত মায়া জালে।   আহারে আমার রূপসী…

  • কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    জ্বালাও তোমার অগ্নি মশাল, তুমিতো তুমি-ই

    জ্বালাও তোমার অগ্নি মশাল পথিক জামান   আমার দু’চোখে বিন্দু বিন্দু জল কখনো তা গড়িয়ে পড়ে নিঃশব্দে নীরবে। সর্বদা অন্তরে তীব্র দহন প্রশ্ন রাখি, এই কি স্বাধীন দেশ? কোথায় তোমার স্বকীয়তা? কোথায় তোমার জাতীয়তাবোধ? আত্মমর্যাদাবোধ ধুলোয় ভূলুণ্ঠিত আজ, সে হুঁশও হারিয়ে বসে আছি বহুকাল আগে।   কী আর আছে তোমার আমার। গর্বিত জাতির এ-কি করুণ অবক্ষয়। এমন তোষণ নীতি শোষণের অশনি সংকেত ভয়ে তাই কেঁপে ওঠে বুক, আবার ঘৃণাও ক্ষোভের অগ্নি শিখা পুড়িয়ে মারে কোটি জনতা কিন্তু আমরা আজ বড় অসহায় জেগে ওঠো বীরজনতা জ্বালাও তোমার অগ্নি মশাল বিপথগামী পথযাত্রীকে টেনে আনো আলোর পথে। শোনাও তাদের অতীত ইতিহাস, শোনাও তাদের…

  • কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

    ঘুষ

    ঘুষ পথিক জামান   সবখানে ঘুষ,খাচ্ছে মানুষ অফিস আদালতে বাসায়, না দিলে ঘুষ হয়ে অমানুষ চেয়ারেতে বসে শাসায়।   না দিলে টাকা, ঘোরে নাকো চাকা লাল ফিতার ফাইলের, বহুদিন ধরে অফিস ঘুরে চোক্ষে দেখেছি ঢের।   মুখে চাপ দাড়ি কথা কয় ভারি মিষ্টি মিষ্টি করে, বয়সেতে দাদু সেজে থাকে সাধু টাকায় পকেট ভরে।   স্বর্গের আশায় ফজরে এশায় আল্লাহ আল্লাহ জিকির, আলিশান বাড়ি কিনিয়াছে গাড়ি করিয়া ফন্দি ফিকির।   গোলটুপি পরে ঘুষ খাও জোরে সুন্নতি বেশ গায়, ভাবি মনে মনে খোদার জমিনে মানুষ চেনাও দায়।   হায়রে মানুষ রঙিন ফানুস কীসের এত লোভ? হয়েছে গাড়ি বহুতল বাড়ি তাও মনেতে ক্ষোভ?…

error: Content is protected !!