• কবিতা,  খোন্দকার আমিনুজ্জামান,  সাহিত্য

    জাগতে হবে, অরূপের রূপ, মানবিকতা, যে ফুল ফুটলো মনে

    জাগতে হবে খোন্দকার আমিনুজ্জামান    স্বাধীন বাংলাদেশে এখনও মানুষ শান্তি খুঁটে খুঁটে খায় কখনও পায় কখনও হারায় সাম্য কাম্য ছিলো যাদের তাদের সোনা মুখ আজ মলিন-অসহায়। ‘৭১ বুকে রেখে আবার যুদ্ধে যাবার সময় হলো জাগো জাগো দুয়ার খোলো মিছিলে মিছিলে জোয়ার তোলো কাঁপিয়ে তোলো পাষাণ হৃদয় এখনই সময়। একটি স্বাধীন রাষ্ট্র গড়তে হাসিমুখে যারা দিয়ে গেল প্রাণ তাদের জন্য, অনাগত দিনের জন্য আনবো দেশের মান জাগতে হবে জাগাতে হবে নইলে আসবে দুঃসময়। আরও পড়ুন খোন্দকার আমিনুজ্জামানের কবিতা- কষ্ট বিবেক সাদা মন   অরূপের রূপ অরূপের রূপ আছে চমক আছে থরে থরে সাধন গুণে সে রূপ অপরূপ দেখে নেরে প্রাণভরে। গুণ…

  • বেআবরু-মন
    কবিতা,  সাহিত্য

    বেআবরু মন, উইপোকাদের ঘরবসতি

    বেআবরু মন মোহাম্মদ সেলিমুজ্জামান   প্রেয়সি, তোমার ঠোঁটের ভাঁজের দাম দিয়েছি বিধবা মায়ের চোখের জলে; তোমার চোখের গহিন জলে ডুবেছি কত! গোলাপি ঠোঁটে, মায়াবি কেশের বুননে অনেক দাম দিয়েছি; তুমি কি জানো—তোমার কণ্ঠে ঝুলছে যে মালা, তাতে বেশ্যার দেহের ভাগ রয়েছে; তোমার হাতের কাঁকনে, মার্ডার কেসের মিথ্যা আসামি ঐ বৃদ্ধটির ভাগ রয়েছে; তোমার দামী গাড়িতে, অসহায় শহীদ পরিবারের ভিটা দখলদারের ভাগ রয়েছে; তোমার রুপশৈলীর ঐ কসমেটিক্সে, ধর্ষিতা নারীর ভাগ রয়েছে; প্রেয়সী, তুমি কি জানো—তোমার সুরম্য বাড়ি ও ফ্লাটে, ঐ যুবকের নেশার টাকার ভাগ রয়েছে; তোমার হাজার শাড়ির রকমারি ভাঁজে, ভূমিদস্যুর ভাগ রয়েছে; তোমার ঐ বেলুয়াড়ী ঝাড়বাতিতে, রাষ্ট্রীয় সম্পদ লুটেরার ভাগ…

  • নীল-সমীকরণ
    কবিতা,  ফজলুল হক,  সাহিত্য

    নীল সমীকরণ, মেঠো গন্ধ

    নীল সমীকরণ ফজলুল হক   আষাঢ়ের বৃষ্টিস্নাত রাত ধূসর দৃষ্টির উপত্যকায় নেমেছে নিকষ আঁধার; জানালার গ্রীলে মুখ গুঁজে দাঁড়িয়ে, কদম ফুলের পাপড়ি ধোয়া বৃষ্টিজল টিপটপ শব্দে টিনের চালে অনিবার পড়ছে। নীলহীন বদলে যাওয়া আকাশটা স্থির একা কোথাও নেই জোনাকির আলো না আছে পাখিদের কূজন, সঙ্গী বলতে মাঝেমধ্যে অদূরে ঝিঁঝিপোকার ক্ষীণ ডাক অনুভব করছি। রাত এগিয়ে যাচ্ছে অন্ধকারের খেয়ায়, একাকিত্বের অতল গহীনে ডুবে যাচ্ছি একটু একটু করে; তৃষ্ণালু চোখের বিদগ্ধ পাতায় স্মৃতিরা সাড়ম্বর কবেই শুকিয়ে গেছে অশ্রু চোয়ানো বেওয়ারিশ লোনা জল, বুকের ভেতর বয়ে যাওয়া বেসামাল উত্তাল ঢেউ মিশে গেছে বার্তাহীন ছেঁড়া পথে। জানি না,সে এখনও আষাঢ়ে বৃষ্টিতে ভিজে কিনা; মুঠোভরা…

  • নতজানু-যুবক
    আবু জাফর খান,  কবিতা,  সাহিত্য

    নতজানু যুবক, মরুমন

    নতজানু যুবক আবু জাফর খান   পাখির প্রার্থনায় নতজানু যুবক অবশেষে জেনেছে মানুষ একা! ক্রন্দিত সূর্যাস্তে তাই ডাহুক হয়ে যায় যুবকের প্রাণ; যূপকাষ্ঠে জ্বলন্ত অগ্নির পাশে দাঁড়িয়ে একদিন তিমিরের বেদিতে নিশিকন্যার রোদণ শোনে! ফিরে যায় বিবর্ণ ঘাসের ঘরে ভূমধ্য শস্য মাড়িয়ে মৃত্যু-আঁধারের ভেতর দিয়ে! যুবকের ভাঙাবুক জানে পৃথিবীর বুকজোড়া যে ফাটল, সে পথে রাত্রির ক্রন্দনধ্বনি পেরিয়ে আলো আসবে! সে আলো দুঃখের কাছে ফিরে যাবে ফের সাদা মেঘের সম্মুখে। কেননা যুবক যখন বলতে প্রস্তুত, তার কাছে দেবার মতো প্রেম আর নেই কিছুই! বহুকাল ধরে সে তরঙ্গের অনেক নিচে নেমে গিয়ে বুঝেছে, কেউই আসলে আজন্ম প্রেমিক কিংবা প্রণয়িনী নয়! যুবক তাই ক্ষয়া…

  • নারী
    কবিতা,  জহুরা ইরা,  সাহিত্য

    নারী, তুলু সোনা

    নারী জহুরা ইরা   আমি নারী সমাজ আমাকে ভাবতেই পারে তুচ্ছ তাতে আমার অস্তিত্বের বিশ্বাসে যায় আসে না কিছু আমি জড় নই। কেউ পারে না আমায় তার ইচ্ছে মত সাজাতে আমি বিধাতার গড়া, সৃষ্টির সেরা, আমি বাধ্য শুধু তাঁরই বিধান মানতে আমি মৃত লাশ নই নইকো আমি পঙ্গু মূক বধির আমি ধ্বংস করতে পারি সমাজের যত গ্লানিমাখা অনাসৃষ্টির॥ আমি দানবের সাথে লড়তে পারি বিদীর্ণ করতে পারি ভূতল আমি ঝর্ণাধারা হয়ে বইতে পারি মরুপ্রান্তরেও ফোটাতে পারি ফুলদল ৷ চাই না আমি খনিজ হয়ে অতল গহীনে থাকতে অকল্যাণের বিরুদ্ধে মন বিস্ফোরিত হতে চায় পৃথিবীতে আমি মানুষ, আমি নারী আমি উচ্ছ্বল, আমি জ্বলন্ত…

  • প্রকৃতির-মাঝে-সুখ-খুঁজি
    কবিতা,  জিন্নাত আরা রোজী,  সাহিত্য

    প্রকৃতির মাঝে সুখ খুঁজি, সাগর কন্যা

    প্রকৃতির মাঝে সুখ খুঁজি জিন্নাত আরা রোজী   আমি উদাস হয়ে মুগ্ধ নয়নে চেয়ে দেখি প্রকৃতির রূপরেখা– যেন, এই প্রকৃতির মাঝে সুখের পিদিম জ্বলে, বলাকা মন আমার প্রকৃতি খোঁজে ফিরে তাইতো ওদের সাথে কত কথা বলি– নিভৃত নির্জনে একাকী বসে দেখা। মেঘে ঢাকা একটা দু’টো তারা যদি খসে পড়ে সবুজ সমারোহে আমি মুগ্ধ চোখে চেয়ে দেখবো প্রাণ ভরে, শুধু এদেশকে ভালোবাসার তরে। আনমনে ভাবী দিবানিশি তাইতো একটু একটু করে প্রতিনিয়ত কবিতা লিখি ওদের নিয়ে, শুধু কাগজে কলমে নয় এ বুকের মধ্যখানে অতল গহীনে। বেলা শেষে পাখিরা ফিরে আপন নীড়ে যখন মাগরিবের আযান পড়ে মসজিদে কিচিরমিচিরে মুখরিত করে ছোট্ট নীড় মনের…

  • প্রেমের-প্রয়াণ; amadersujanagar.com
    আবু জাফর খান,  কবিতা,  সাহিত্য

    প্রেমের প্রয়াণ

    প্রেমের প্রয়াণ আবু জাফর খান   রমণীর কোঁচড় ছিড়ে প্রেম পড়ে গেলে রাতের ঘুমপাখির ডানার শব্দ শোনা হয় না আর। প্রথম যেদিন আঙুল খেলেছিল দ্বিপর্ণ গাছের বোঁটায় ডালপালা মেলেছিল কিছুকাল পাখিদের ওড়াউড়ি ছিল পাতায় পাতায় রহস্যের আলো এসে পড়েছিল। এখন সুনসান! কিছুদিন, প্রথম কয়েকটা দিন শুধু অন্ধকার থেকে আরও অন্ধকারে পথ ঘুরে যেত; মনে হতো, এই আলোর অন্ধকারে জলের শরীর ঘেঁষে পদ্ম ফুটবে, বৃষ্টিভেজা দু-একটি পাতা এসে পড়বে নৌকোর মাস্তুলে। এখন মেঘ কাঁদে! মেঘেরা কেঁদে যায় অসুখের শোকে গনগনে লৌহরঙের সূর্যোদয় নিয়ে আমি এখন ব্যস্ত থাকি পায়ের তলার মাটি মূলত সরে গেছে যাক সরে, শূন্যে ভাসব। দেবালয় এখন শ্মশান! আমার…

  • শূন্যতা
    কবিতা,  মো. হাতেম আলী,  সাহিত্য

    শূন্যতা, সাধ ছিল মা

    শূন্যতা মো. হাতেম আলী   স্বপ্ন দেখেছি কাছে ডেকেছি ঘর বেঁধেছি,সখি তোর সনে; ওগো রূপসী ভালো বেসেছি ছবি এঁকেছি,বসে নির্জনে। ফোঁটা কাননে মোরা দু’জনে সুখালাপনে,কাটিতো দিন ; বিনি কারণে সখি এ মনে কি যে দহনে,করিলি লীন। ঐ দু’চোখে কিনা কি দেখে তুই আমাকে,করিলি পর ; আজও বুঝিনি ওগো অভিমানি কেন যে হইলি, স্বার্থপর..? তুই বিহনে ভেজা নয়নে তুষিত মনে,বসে যে রই ; স্মৃতির পাতায় কত যে কথা মনেরই ব্যথা,কারে বা কই। বল না দেখি তুই ও সখি দিয়ে যে ফাঁকি,ভাঙলি ঘর ; বুকে হাত রেখে বল আমাকে আছিস কী সুখে,করে তুই পর। যদি কোনদিন হয় গো মলিন বাজে বিষ বীণ,…

  • নির্জলা-উপবাস
    কবিতা,  ফজলুল হক,  সাহিত্য

    নির্জলা উপবাস, চন্দ্রমুখী, তোমার ভালোবাসা

    নির্জলা উপবাস ফজলুল হক   বৃষ্টি থেমে গেছে অনেক আগেই কার্ণিশে জল ঝরছে.. মন করিডোরের অন্ধগলির দেয়াল ভাঙা পথে নিমগ্ন ভাবনার দ্বারে শীস দিয়ে যায় ধূসর স্মৃতিরা। রাত্রির আকাশে হেঁটে হেঁটে ইচ্ছেরা ক্লান্ত চাঁদের দূরত্ব রেখায় আঁকে ক্ষয়িত জীবনের আল্পনা। জানি না গন্তব্য কোথায় তবুও পথ খোঁজার শেষ নেই; অন্তর্গৃহে সুখের ছায়া স্পর্শে নয় মরা নদীর শূন্যতার শেষ ঠিকানা অবধি অবিশ্রাম তোমাকে খুঁজেছি, খুঁজেছি– গাঙচিল ওড়া উদার আকাশের নীচে বুড়িগঙ্গার জোয়ার জলে নায়তে আসা অজস্র রমনীর ভিড়ে। কী এক অদ্ভুত বাসনায় আচমকা গোত্র বদলে ফেলেছো বদলেছে উচ্ছ্বাস, তোমার আকাশেও ভিন্ন রঙের মেলা। হেঁসেলের ধোঁয়া, পোড়া মাটির গন্ধ তাল পাখার বাতাস–…

  • এ-ক্রান্তিকাল-শেষে
    কবিতা,  শরিফুল হক,  সাহিত্য

    এ ক্রান্তিকাল শেষে

    এ ক্রান্তিকাল শেষে ফকির শরিফুল হক   যদি এ ক্রান্তিকাল শেষ হয় একদিন, যদি বেঁচে যায় দূর্নীতি ঘুষখোর লুটেরা যারা আজ অতি সাধু সন্ন্যাসী ভবে লেবাসি মানবতা শেখায়, যদি বেঁচে যায় ঐ দাম্ভিক রাজা মহারাজ যার ইশারায় নিমিষেই ধ্বংস হয় আফগান ফিলিস্তিনের মানচিত্ৰ বুক। যদি বেঁচে যায় ঐ মারণাস্ত্র প্রযুক্তির দৈত্য দানবেরা যারা কথায় আনবিক বোম হয়ে ফোটে শাস্তির বুকে, যদি বেঁচে যায় তারা, যারা শান্তির কাশ্মীরকে সীমার দোহাই দিয়ে মানবতাকে বারবার করছে জখম! যদি বেঁচে যায় পেশিবাহু বিশ্ব নীতি নির্ধারকেরা তবে জলবায়ু বায়ুমণ্ডলে পরবে আবার অশনি আদেশ, পুড়বে হাজার মাইল বন, কার্বনডাই-অক্সাইডে বন্ধ হবে পৃথিবীর দম, হাজারো বোবা উটের…

  • ফেলে-আসা
    আনন্দ বাগচী,  কবিতা,  সাহিত্য

    ফেলে আসা,মানুষের ঘর,স্মৃতি,স্বপ্নগুলি

    ফেলে আসা আনন্দ বাগচী   কিছুই হয়নি বলা, গল্প শেষ হয়ে গেল রোদ্দুরে বৃষ্টিতে গল্পগ্রাম, ইস্টিশান, নদী, সাঁকো, নৌকোর গলুই ধূসর স্মৃতির মধ্যে বিধে থাকল, ক্রমে ক্রমে হলদে হয়ে আসা ফটোর মতন স্থির সাবেক কালের বাড়িখানা, গভীর ঘুমিয়ে আছে কুয়াশায়, কার শীর্ণ শাখাপরা হাত খাটের বাজুতে আড় হয়ে আছে তামাকের প্রৌঢ়গন্ধে ঘর ভরে আছে। সটকার বোলের মত চমকে চমকে ওঠে কবুতর। এখনো উলুর ধ্বনি কান পাতলে, প্রতিমার মত নববধূ দামাল শিশু, বালাবেলা, বাঁশবনে আটকে থাকা চাঁদ পুরনো ব্যথার মত লটকে আছে বুকের ভেতরে । কিছুই হল না বলা, গল্প শেষ হয়ে গেল রোদ্দুরে বৃষ্টিতে।   মানুষের ঘরে এখনো রয়েছে কিছু…

  • স্বপ্নবাড়ি
    আবু জাফর খান,  কবিতা,  সাহিত্য

    স্বপ্নবাড়ি

    স্বপ্নবাড়ি আবু জাফর খান   শূন্যতার নিজস্ব একটি বিষাদ আছে ঢেউ ভাঙা একাকী মাঝির নৌকোর পাটাতনে… সে বিষাদ বেজে যায়; পাখি ও বিষণ্নতায় মিল পাই মিল দেখি জল ও মুকুরে শুধু তুমি আর আমি মেলাতে পারিনি কিছুই। আমরা জল-পাথরের বিপরীত সুরে বাজি আমাদের দিনরাত্রির কথার শস্যাঙ্গনে… না তুমি আছ না আমি; আমাদের ব্যথার শিষদাগে ডুবে আছে বিপণি পৃথিবীর সমূহ বিতান। আমি যখন খুব ভোরে অর্চার্ডে হাঁটি সেই সময় ঠাকুরমা সুর করে পুথি পাঠ করেন; আমার মনে হয়, একটা পয়ারের সরণি বেয়ে পৌঁছে যাচ্ছি দূরে, কৃত্তিবাসের গ্রামে; আসলে জীবনানন্দের বাড়ির পথ আরও আরও দীর্ঘ। আমি আঙিনার বাম হাতে দিই পুরনো কিছু…

  • আপন-ভূবন
    কবিতা,  মো. শাহ জাহান আলী,  সাহিত্য

    আপন ভূবন, গোধূলি লগ্নের কাহন

    আপন ভূবন মো. শাহ জাহান আলী   আমার বড়ই ইচ্ছে হচ্ছে.. ফিরে যাই শেকড়ের টানে আমার রূপসী বাংলার কোন এক নিভৃত গ্রামে। মায়া মমতায় জড়ানো আবেশে যেখানে আবাল্য বেড়ে ওঠা প্রকৃতির বুকে পেয়েছি ভালোবাসা দাঁড়িয়ে দেখেছি স্বচ্ছ পুকুর জল খাল-বিল নদী-নালায় ভরা তাতে শাপলা শালুকের মেলা পরিস্ফুটিত জলে জ্যোৎস্নায় বিলিয়েছে মিষ্টি ম্লান আলো.. যেনো প্রেয়সীর মুক্তা ঝলমলে দাঁতের হাসিতে ঠিকরে পড়ছে গলাগলি করে শাপলা কমল কি প্রেমময় আলিঙ্গনে জড়জ প্রকৃতির প্রতিকূলতার মাঝে, ঝড়-ঝাপটা উপেক্ষা করে আছে ওরা একে অপরের আপনে আপন খুব কাছে একে অপরের শরীরে মিশে! আমি ফিরে যেতে চাই সেই আপনার আপনের মায়াবী সুন্দর আবেশে, যেখানে একাকিত্বে ভোগে…

  • তুমি-কাঁদিতেছ-কেন
    কবিতা,  জাহাঙ্গীর পানু,  সাহিত্য

    তুমি কাঁদিতেছ কেন, অযাচিত অহমিকা

    তুমি কাঁদিতেছ কেন? জাহাঙ্গীর পানু   শীতকালে এমন বৃষ্টি দেখিনি কখনো! ব্যথিত হৃদয়ে তুমি কাঁদিতেছ কেন? নেই বৈশাখের ইশান কোণের নিকষ কালো মেঘ নেই আষাঢ়ের কালো মেঘের ঘনঘটা তবে কেন তোমার চোখে ঝরছে বারিধারা। হঠাৎ সঙ্গীহারা কোনো যুবতীর আর্তনাদের মতো ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ নীড়হারা আশ্রয়হীন পাখির মতো যেমন কাঁদে ব্যর্থ প্রেমিকের বিধ্বস্ত হৃদয় ; অনেক জমানো কথা না বলার অভিযোগে- আশাহত পৌষ তুমি কাঁদিতেছ কেন? নেই নদীর উত্তাল তরঙ্গের প্রথাগত আস্ফালন নেই শ্রাবণের বিরামহীন বারিধারার প্রচণ্ড ঢল নেই নদী স্রোতের তোরে নদীভাঙা কোনো জনপদ তবে কেনো নদীগর্ভে সব হারানো রমণীর মতো- নির্লীপ্ত মাঘ তুমি কাঁদিতেছ কেন? নেই দখলদার কোনো রাজার রক্তচক্ষুর…

  • ভালো-থাকিস-মা
    কবিতা,  মো. হাতেম আলী,  সাহিত্য

    ভালো থাকিস মা, ডিজিটাল শিক্ষা, কাগজের ফুল

    ভালো থাকিস মা মো. হাতেম আলী   ভালো থাকিস মা রে তুই, ভালো থাকিস মা তোর অবর্তমানে কিছুই ভালো লাগে না ভালো থাকিস মা উপরে- ভালো থাকিস মা… তোর উদরে দশ মাস দশ দিন করছিলি ধারণ কত কী যে খাওয়া মা তোর ছিল রে বারণ। মাগো আমায় ভালো রাখবি বলে- নিজের কথা ভাবলি না…। জন্মের পরে পিতৃহারা হলাম মা যখন আদরে সোহাগে আমায় করিলি যতন। পিতার অভাব কোন দিনই- বুঝতে দিসনি মা …। দু’বছর হল তুই ছেড়েছিস ভুবন বুঝেছি মা তুই বিনে মোর কেউ নয় আপন। এখন তোর কথা মনে হলে- ঘরে রইতে পারি না…।   ডিজিটাল শিক্ষা ছেলে আমার…

error: Content is protected !!