আমি-গর্বিত
কবিতা,  রমজান আলী খাঁন,  সাহিত্য

আমি গর্বিত, মায়ের দুলাল

আমি গর্বিত
মো. রমজান আলী খাঁন

 

আমি গর্বিত,আমি বাংলা মায়ের ছেলে,
সোনা ঝরানো এমন দেশ কোথাও নাহি মেলে।
আমি গর্বিত,আমার জন্ম স্বাধীন বাংলাদেশে,
মাকে মা বলে ডাকতে পারি চলি স্বাধীন বেশে।

আমি গর্বিত,আমি বাংলা মায়ের সন্তান,
বসন্তে কোকিলের কুহু-কুহু গানে জুড়ায় আমার প্রাণ।
আমি গর্বিত,সোনার বাংলায় পেয়েছি স্বাধীনতা,
প্রাণ খুলে বলতে পারি বাংলা ভাষায় কথা।

আমি গর্বিত,আমার স্বাধীন বেশে বাড়ি,
সারা বাংলার সকল প্রান্তে বুক ফুলে চলতে পারি।
আমি গর্বিত,দামালের তাজা খুনে এ দেশ কেনা,
সোনার বাংলা স্বাধীন বাংলা সারা বিশ্বের চেনা।

সুজলা সুফল শস্য-শ্যামলা মায়ায় ভরা দেশ,
রূপ লবণ্যে ভরপুর রূপের নেইকো শেষ।
সুন্দর থেকে সুন্দরতম রূপের শারিতে ঘেরা,
রক্তে রাঙানো উর্বর ভূমি সবুজ শস্যে ভরা।

স্বাধীন বাংলার বাঙালি সন্তান আমি,
কবি সাহিত্যিকে ভরপুর এদেশ স্বর্ণেের চেয়েও দামী।

 

মায়ের দুলাল

মাকে ডেকে বলছে একদিন দুলাল নামের ছেলে,
ইয়াবা হিরোইন সেবন করে যাবো না আর জেলে।
অনেক দিনতো সইলাম কতো কষ্ট যন্ত্রণা,
সাগর পাড়ি দিবো এইবার মনের বাসনা।

ঢাকায় গিয়ে এ্যম্বাসির সামনে ঘোরাফেরা করে,
ঘুরতে ঘুরতে দুলাল হঠাৎ দালালের খপ্পরে পরে।
দালান বলে বিদেশ যেতে লাগবে অল্প টাকা,
সাগর পথে যাবে চলে রাস্তা আছে ফাঁকা।

বাড়ি এসে দুলাল গাজী মায়ের কাছে বলে,
টাকার জোগাড় করো আমি বিদেশ যাবো চলে।
প্রতিজ্ঞা করেছি আমি করবো না আর নেশা,
সাগর পথে বিদেশ যাবো অল্প টাকায় ভিসা।

মায়ে বলে বেশ তো আছিস থাকিস আমার সামনে,
তোকে বিদশ দিয়ে কষ্ট সহ্য করবো কেমনে।
তুই আমার একমাত্র সন্তান দুই নয়নের মণি,
গরীব আছি ভালোই আছি চাইনা হতে ধনি।

কাকুতি মিনতি করে মাকে করে রাজি,
বিদেশে রওয়ানা হলো মায়ের দুলাল গাজী।
সাগর পথে ছাড়লো ট্রলার যাত্রীদেরকে নিয়ে,
পাটাতনের নিচে ঢোকায় লাথি গুতা দিয়ে।

এমন যায়গায় ঘোকায় সেথায় সূর্যের আলো নাই,
ভাবে দুলাল এইবার বুঝি জীবনটা হারাই।
দেয়না তাদের খানা খাদ্য একবিন্দু পানি,
দুলাল সহ কতো লোকের হলো প্রাণহানি।

দুখিনী মা ছেলের জন্য কেঁদে বুক ভাসায়,
ডেকে বলে আয়রে দুলাল বুকে ফিরে আয়।
বোকার ন্যায় কেহ যেনো নেয়না এমন ঝুঁকি,
দালালের দালালী কিন্তু অধিকাংশই ফাঁকি।

সিন্দুরী বরুরীয়া, সাগরকান্দি, সুজানগর,পাবনা ।

আরও পড়ুন কবিতা-

ভরে যায় মন

সুশিক্ষার অভাব

অষ্টাদশী মন

 

ঘুরে আসুন আমাদের ফেসবুক পেইজে

Facebook Comments Box

প্রকৌশলী মো. আলতাব হোসেন, সাহিত্য সংস্কৃতি এবং সমাজ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নিবেদিত অলাভজনক ও অরাজনৈতিক সংগঠন "আমাদের সুজানগর"-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং "আমাদের সুজানগর" ওয়েব ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও প্রকাশক। সুজানগর উপজেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সাহিত্য, শিক্ষা, মুক্তিযুদ্ধ, কৃতি ব্যক্তিবর্গ ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতে ভালোবাসেন। বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করে বর্তমানে একটি স্বনামধন্য ওয়াশিং প্লান্টের রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেকশনে কর্মরত আছেন। তিনি ১৯৯২ সালের ১৫ জুন পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত হাটখালী ইউনিয়নের সাগতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

error: Content is protected !!